April 16, 2024, 4:53 am
সর্বশেষ:
মেঘনায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপিত মেঘনায় কাঁঠালিয়া প্রজন্ম সামাজিক সংস্থার ঈদ সামগ্রী বিতরণ মেঘনায় বিনোদন কেন্দ্র না থাকায় ঈদ আনন্দে ভাটা, নিরসন জরুরি এততান কিরতি আনছত, ঘরে আছেনা! মেঘনায় গণ ও যুব অধিকারের ইফতার বিতরণ রাস্তা ও ড্রেন নির্মাণ কাজে নিম্নমানের নির্মাণসামগ্রী ব্যবহার ফতেহাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী মৎসজীবী লীগ : খোকন সভাপতি শরীফ হোসেন সম্পাদক মেঘনায় দোকানে আগুনের ঘটনায় বাবাসহ দুই ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রথম বারের মত শতভাগ অনলাইনে মনোনয়ন ফরম জমা দিবে প্রার্থীরা : মো.মুনীর হোসাইন খান রিটার্নিংকর্মকর্তার সাথে আচরণ বিধির মতবিনিময়ের পরেই এক প্রার্থী অপর প্রার্থীকে হুমকির অভিযোগ 

মানুষকে বিষ খেতে দেয়া যাবে না : র‍্যাব ডিজি

২৮ জুন ২০১৯, বিন্দুবাংলা টিভি  . কম, ডেস্ক রিপোর্ট :

র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ বলেছেন, খাদ্যের মাধ্যমে ব্যবসায়ীরা দেশের মানুষকে বিষ খাওয়াবে, তা হতে দেয়া হবে না। দেশের মানুষকে বিষ খেতে দেয়া যাবে না।

গতকাল বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) রাতে রাজধানীর লা মেরিডিয়ানে বাংলাদেশ রিটেইল ফোরাম আয়োজিত ‘সুপারস্টোরে পণ্যের মান রক্ষণাবেক্ষণথ শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বেনজীর আহমেদ বলেন, কোথায় ভেজাল নেই? খাবারে ভেজাল, রেস্টুরেন্ট, রাস্তার দোকানেও। খাদ্যদ্রব্যে ভেজাল। দুধের মধ্যে পানি তাও কিন্তু ভেজাল। ব্যবসায়ীরা গরুর খাদ্য আমদানির নামে মেয়াদোত্তীর্ণ শিশু খাদ্য আমদানি করছেন। অথচ নতুন মেয়াদের তারিখ বসিয়ে বিক্রি করছেন। আমরা এই ভেজাল ব্যবসায়ীদের ফাঁসি চাই। এরা নীরব ঘাতক।

তিনি বলেন, একটি সভ্য দেশের মতো সব গুণাবলী আমাদের দেশে উপস্থিত। আমরা শিশুর বিষাক্ত খাদ্য চাই না। আমাদের কোনো ব্যবসায়ী ভেজাল খাদ্য তৈরি করবেন, তা আমরা চাই না। দ্রুত বড়লোক হওয়ার নেশায় ভেজালে জড়াবেন না। কিছু অসাধু ব্যবসায়ী এসব করতে পারে না। আমাদের দেশের মানুষকে বিষ খাওয়াতে দেব না।

র‍্যাব ডিজি আরও বলেন, যারা সুপারস্টোরেজ পরিচালনা করছেন, আজ তাদের নিয়ে বসলাম। আমরা এখান থেকে কিছু ম্যাসেজ দিতে পেরেছি। খাদ্যের প্রতিটি স্তরে ভেজাল হচ্ছে, জালিয়াতি হচ্ছে, বিষাক্ত খাবার বিক্রি ও খাওয়ানো হচ্ছে। আমি বিনীত অনুরোধ জানাবো, আমাদের দেশের মানুষকে বিষাক্ত খাবার খাওয়াবেন না। বিদেশ থেকে মেয়াদোত্তীর্ণ বিষাক্ত খাবার আমদানি করবেন না।

বেনজীর আহমেদ বলেন, হজ করবে মানুষ। সেখানেও ভেজাল। ১৫০ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার প্রক্রিয়া চলছিল। প্রান্তিক মানুষের কাছ থেকে এই টাকা হাতিয়ে নিতে একটি চক্র জোটবদ্ধ হয়েছিল। সেখানে র‍্যাব গেছে। জরিমানা করেছে, বন্ধ করেছে। জনগণের নিরীহ মানুষের পকেট কেটে কিছু মানুষ টাকা নিয়ে যাবে আমরা তামাশা দেখব তা হবে না। ইনশাল্লাহ র‍্যাব এবার আরও কার্যকরী উদ্যোগ নেবে।

তিনি আরও বলেন, আসলে জেল দিয়ে জরিমানা করে পরিবর্তন করা সম্ভব নয় এজন্য সচেতনতা দরকার, পরিবর্তনের মানসিকতা দরকার। আমাদের যে সীমাবদ্ধতা আছে তা পূরণের চেষ্টা থাকা দরকার। কারণ এই দেশটা আমাদের। সমস্যার সমাধান আমাদেরই করতে হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন


ফেসবুকে আমরা