July 14, 2024, 5:11 pm

ফেনীর সোনাগাজীতে স্কুল ছাত্র কে বলাৎকার

৬ মে ২০১৯ বিন্দুবাংলা টিভি .কম

সৈয়দ কামাল,ফেনী থেকেঃফেনীর

সোনাগাজীতে মানুষ রুপি জানোয়ারের সংখ্য বেড়েই চলেছে,কোন ভাবেই বন্ধ করা যাচ্ছেনা এইসব জানোয়ারদের অপকর্ম।৫ মে রবিবার দুপুরে আলোচিত সেই সোনাগাজীতে মানুষ রুপি দুই জানোয়ারের ঘৃণীত লালসার বলি হয়ে বলৎকারের শিকার হলো অষ্ঠম শ্রেনীর এক স্কুল ছাত্র।যে দুই জানোয়ার ঘৃণীত অসামাজিক এই অপকর্মটি ঘটিয়েছে,সেই দুই জানোয়ার হল উপজেলার চরছান্দিয়া ইউনিয়নের দক্ষিন চরছান্দিয়া গ্রামের,মৃতঃওবায়দুল হকের ছেলে মোঃ সিরাজ(৪০) ও একই গ্রামের,নুর নবীর ছেলে গোলাপ মাওলা রাসেল(৩০)।স্থানীয় এলাকাবাসী অসামাজিক অপকর্মে অভিযুক্ত এই দুই জানোয়ারকে ধরে,স্থানীয় চরছান্দিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেনে মিলনের হাতে সোর্পদ করেন।

জানাযায় ঘটনা ঘটার পর বলৎকারের অভিযোগে এনে ওই ছাত্রের পিতা,চরছান্দিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন মিলনের কাছে লিখিত একটি অভিযোগ দাখিল করেন। অভিযোগ পেয়ে চেয়ারম্যান রবিবার বিকেলে জনগণের সোর্পদকৃত অভিযুক্ত সেই দুই জানোয়ারকে সোনাগাজী মডেল থানা পুলিশের হাতে তুলেদেন।

বলৎকারের শিকার ছাত্রের মা জানান,অভিযুক্ত দুই জানোয়ার এর পূর্বেও তার ছেলেকে বাড়ীথেকে ডেকে নিয়ে জানে মেরে পেলার ভয় দেখিয়ে কয়েকবার বলৎকার করেছে।ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর এই বিষয় আমি আমার ছেলের কাছে ঘটনার সত্যতা সম্পর্কে জানতে চাইলে,সে কান্না জড়িত কন্ঠে পূর্বে ও যে তাকে ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক ওই দুই জানোয়ার তার সাথে একাধীক বার ঘৃণীত এই কাজটি করেছিল তা জানায়।

জনগণের ধরে দেওয়া স্কুল ছাত্র বলৎকারের অভিযোগে দুই অভিযুক্ত ব্যাক্তির পরিবারের পক্ষথেকে জানানো হয়,পূর্ব শ্রত্রুতার জেরধরে থানা হাজতে থাকা ওই দুই অভিযুক্তকে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে ফাঁসানোর পায়েতারা চালাচ্ছে ওই ছাত্রের পরিবার।

এই ঘটনার বিষয় সোনাগাজী মডেল থানার সাথে যোগাযোগ করা হলে,থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই সাইফুদ্দিন জানান, স্কুল ছাত্রকে বলৎকারের অভিযোগে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান দুই ব্যাক্তিকে পুলিশের কাছে সোর্পদ করেছেন।বিষয়টি নিয়ে এখন পর্যন্ত কেউ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি।লিখিত অভিযোগ পেলে এই বিষয় থানা আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহণ করবে।

 


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন


ফেসবুকে আমরা