April 15, 2024, 10:48 pm
সর্বশেষ:
মেঘনায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপিত মেঘনায় কাঁঠালিয়া প্রজন্ম সামাজিক সংস্থার ঈদ সামগ্রী বিতরণ মেঘনায় বিনোদন কেন্দ্র না থাকায় ঈদ আনন্দে ভাটা, নিরসন জরুরি এততান কিরতি আনছত, ঘরে আছেনা! মেঘনায় গণ ও যুব অধিকারের ইফতার বিতরণ রাস্তা ও ড্রেন নির্মাণ কাজে নিম্নমানের নির্মাণসামগ্রী ব্যবহার ফতেহাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী মৎসজীবী লীগ : খোকন সভাপতি শরীফ হোসেন সম্পাদক মেঘনায় দোকানে আগুনের ঘটনায় বাবাসহ দুই ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রথম বারের মত শতভাগ অনলাইনে মনোনয়ন ফরম জমা দিবে প্রার্থীরা : মো.মুনীর হোসাইন খান রিটার্নিংকর্মকর্তার সাথে আচরণ বিধির মতবিনিময়ের পরেই এক প্রার্থী অপর প্রার্থীকে হুমকির অভিযোগ 

ভারতীয় হাই কমিশনা’র রামগড় স্থলবন্দর পরির্দশন

১৬ জুন ২০১৯, বিন্দুবাংলা টিভি. কম,   খাগড়াছড়ি, প্রতিনিধি : খাগড়াছড়ি জেলার রামগড় স্থলবন্দরের চলমান মৈত্রী সেতুর কাজের অগ্রতির কার্যক্রম দেখার জন্য ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাস সরেজমিনে পরির্দশন করেছেন। এসময় সাথে ছিলেন, ডিপুটি কমিশনার চট্টগ্রাম অনিদ্র ব্যানার্জি, ভারতীয় জাতীয় হাইওয়ের প্রজেক্ট প্রধান দিল ভাকসিংসহ পদস্থ কর্মকর্তাগণ।

রবিবার (১৬ জুন) সকাল ১১টার সময় পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধি দল নিয়ে তিনি রামগড় স্থলবন্দর এলাকা পরির্দশন করেন। ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাস রামগড় স্থলবন্দর এলাকায় এসে পৌঁছালে সেখানে তাকে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী ও জেলা প্রশাসক শহিদুল ইসলাম ও বিভিন্ন দপ্তরের প্রশাসনিক কর্মকর্তারা আনুষ্ঠানিক অভ্যর্থনা জানান।

এসময় খাগড়াছড়ি আসনের সাংসদ ও শরণার্থী বিষয়ক টাক্সফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরার সহধমির্নী মল্লিকা ত্রিপুরা, ৪৩ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে. কর্ণেল তারিকুল হাকিম, খাগড়াছড়ি সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী শাকিল মোহাম্মদ ফয়সাল, খাগড়াছড়ি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম সালাহউদ্দিন, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু ও জুয়েল চাকমা, উপজেলা চেয়ারম্যান বিশ্ব প্রদিপ কুমার কার্বারী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মে ইসরাত, খাগড়াছড়ি সড়ক বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী সুবজ চাকমা, রামগড় থানা অফিসার ইনচার্জ প্রমূখ ।

পরে বন্দর এলাকায় তিনি প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করেন। এসময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, রামগড় স্থলবন্দর চালু হলে ভারত-বাংলাদেশ বাণ্যিজিক ভাবে যেমন অর্থনৈতিক দিকে লাভবান হবে তেমনি চট্টগ্রাম বিভাগের সাথে ভারতের যোগাযোগ ব্যবস্থা ও যাত্রী পরিবহনে অনেক সুবিধা হবে।

এদিকে হাইকমিশনের স্থলবন্দর এলাকা পরির্দশন উপলক্ষ্যে প্রশাসনিক নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। পরে রামগড় পাহাড়াঞ্চল কৃষি গবেষণা কেন্দ্রে বিশ্রাম ও দুপুরের খাবার শেষে রামগড় ত্যাগ করেন।

 


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন


ফেসবুকে আমরা