April 16, 2024, 5:26 am
সর্বশেষ:
মেঘনায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপিত মেঘনায় কাঁঠালিয়া প্রজন্ম সামাজিক সংস্থার ঈদ সামগ্রী বিতরণ মেঘনায় বিনোদন কেন্দ্র না থাকায় ঈদ আনন্দে ভাটা, নিরসন জরুরি এততান কিরতি আনছত, ঘরে আছেনা! মেঘনায় গণ ও যুব অধিকারের ইফতার বিতরণ রাস্তা ও ড্রেন নির্মাণ কাজে নিম্নমানের নির্মাণসামগ্রী ব্যবহার ফতেহাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামী মৎসজীবী লীগ : খোকন সভাপতি শরীফ হোসেন সম্পাদক মেঘনায় দোকানে আগুনের ঘটনায় বাবাসহ দুই ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রথম বারের মত শতভাগ অনলাইনে মনোনয়ন ফরম জমা দিবে প্রার্থীরা : মো.মুনীর হোসাইন খান রিটার্নিংকর্মকর্তার সাথে আচরণ বিধির মতবিনিময়ের পরেই এক প্রার্থী অপর প্রার্থীকে হুমকির অভিযোগ 

দিনাজপুরে ৫১ জন ছাত্রীকে বন্দী রেখে মানসিক নির্যাতনের অপরাধে মেস মালিক আটক

 

ঢাকা, শনিবার, ০৩ আগষ্ট ২০১৯বিন্দুবাংলা টিভি. কম,     (দিনাজপুর প্রতিনিধি):দিনাজপুর শহরের বালুবাড়ী মহিলা কলেজ সম্মুখে একটি ছাত্রী মেসে অগ্রীম ঘর ভাড়ার জন্য ৫১ জন ছাত্রীকে ৩দিন ধরে বন্ধি রেখে মানিসক নির্যাতন করার অপরাধে পুলিশ মেস মালিক জাহানা বেগমকে আটক করেছে।
গত শুক্রবার রাত ৮টায় স্থানীয় লোকজন পুলিশ ও সাংবাদিকদের মোবাইল করে জানালে সাংবাদিকরা ছুটে যায় এবং গিয়ে দেখে শত শত এলাকাবসাী, কোতয়ালী থানার পুলিশ ও এলাকার কাউন্সিলর অরেজ উক্ত ছাত্রীদের উপর মানসিক নির্যাতনের বিষয়ে প্রতিবাদ বিক্ষোভ করছে। নির্যাতিত ছাত্রীরা জানায় মৃত লোকমানের স্ত্রী জাহানারা বেগম তার নিজ বাড়ীতে মেয়েদের মেসের ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। এবাড়িতে কোন পুরুষ মানুষ না থাকায় রাতে মেসের বাহিরে কে বা কারা জানালা থাপড়ানো, বাহির থেকে আজে বাজে কথা বলা, ভয়ভীতি প্রদর্শন করা প্রতিদিনে ঘটনা ঘটে যাচ্ছে। ছাত্রীরা নিজেদের নিরাপত্তা পাবার জন্য মেস মালিক জাহানারা বেগমকে সিকিউরিটি গার্ড রাখার অনুরোধ জানিয়ে কোন ফল না পেয়ে তারা ১ আগস্ট মেস ছাড়ার কথা জানায়। মেস মালিক একথা শুনে ক্ষিপ্ত হয়ে ৩০ জুলাই তাদেরকে ঘরে তালা লাগিয়ে বন্দি করে রাখে এবং বলে আগস্ট মাসের ভাড়া দিয়ে যেতে হবে। ছাত্রীরা আগস্ট মাসের ভাড়া না দিলে তাদের উপর মানসিক ও শারিরিক নির্যাতন শুরু করে। এমনিকি স্থানীয় মস্তান দুটি ছেলেকে ঘরে ঢুকিয়ে ছাত্রীদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। ইসলামিয়া মহিলা কলেজের আইএ প্রথম বর্ষের ছাত্রী রিপাকে জাহানারা বেগম শারিরিক নির্যাতন করেছে বলে তিনি জানান। গত শুক্রবার রাতে ১ আগস্ট এলাকাবাসী ছাত্রীদের কান্নাকাটি, চিৎকার শুনে থানায় এবং সাংবাদিকদের মোবাইল করলে ঘটনাটি ফাঁস হয়ে পড়ে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে মেস মালিক জাহানারা বেগমকে আটক করে থানায় নিয়ে আাস্এবং ছাত্রীদের অভিভাবকরা এখবর পেয়ে পরদিন এসে তাদের কন্যাদের নিয়ে যান। ছাত্রীরা এই মানসিক ও শারিরিক নির্যাতনের জন্য মেস মালিক জাহানারা বেগমের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি দাবি করেছে। উল্লেখ্য, দিনাজপুর শহরের বিভিন্ন কলেজের ৫১ জন ছাত্রী ১৪শত ১৫টাকা প্রতি মাসে খাওয়া বাদে প্রদান করে আসছে।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন


ফেসবুকে আমরা