May 28, 2024, 4:24 am
সর্বশেষ:
সেনাবা‌হিনীর বিরুদ্ধে উদ্দেশ‌্য প্রণোদিতভাবে প্রতিবেদন প্রচার করা হচ্ছে : সেনাপ্রধান আগামীকাল মেঘনা উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানদের শপথ কুলিয়ারচর রেলওয়ে স্টেশনে ১ দালাল আটক, ১০ হাজার টাকা জরিমানা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি হয়ে গেলে এ বিশিষ্ট নাগরিকদের আর পাওয়া যায় না : দুদক চেয়ারম্যান সাবেক আইজিপি বেনজীরের সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ সাবেক সহকারী কর কমিশনারের নামে মামলা করেছে দুদক মেঘনায় সেলাই মেশিন ও হুইল চেয়ার বিতরণ নদী খননের বালু বিক্রি করে সরকারি কোষাগারে আসতে পারে শতকোটি টাকা শনাক্তের পরও নিষিদ্ধ ঘনচিনি খালাসের সত্যতা পেয়েছে দুদক উপকর কমিশনারসহ তিন জনের নামে দুদকের মামলা

মেঘনা গ্রুপের পেটে সরকারি সড়ক -সেতু

১৫ জুন ২০২৩ ইং, বিন্দুবাংলা টিভি ডটকম, বিপ্লব সিকদার :

 

সরেজমিনে দেখা যায় লুটের চর গ্রামের বাসিন্দারা যাতায়াতের সুবিধার জন্য একই গ্রামের ধনাঢ্য ব্যক্তি লুটের চর মফিজুল ইসলাম দুধ মিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম মফিজুল ইসলামের নিকট আবেদন জানালে তিনি নিজস্ব অর্থায়নে সড়কটি করে দেন। মেঘনা গ্রুপ সড়ক, সেতু, এবং সড়কের পাশে থাকা প্রায় ৪৩ টি আকাশমণি গাছ কেটে এলাকার প্রভাবশালীদের সমন্বয়ে তিন ফসলি কৃষি জমি ক্রয় করে এবং সরকারি খাল, খাস সহ নদীর জমি ভরাট করে। যা পরবর্তীতে কুমিল্লা অর্থনৈতিক অঞ্চল ঘোষনা করে সরকার। এ বিষয়ে লুটের চর এলাকার বাসিন্দা মুক্তিযোদ্ধা আবদুল গাফফার বলেন লুটের চর এলাকার বাসিন্দাদের অতি গুরুত্বপূর্ণ কাচা সড়ক এটি নদীতে যাওয়া জমিতে কাজ করতে এই সড়কটি ব্যবহার হত কোম্পানি আমাদের বফাইল ছবি লেছে এলাকায় একটি স্টেডিয়ামের জন্য জমি দিবে এই বলে সড়ক – সেতু সহ গাছপালা দখল করে নিয়েছে। একই এলাকার বাসিন্দা কবির হাউদ বলেন কোম্পানি আমাদের সাথে প্রতারণা করছে সরকারি সড়ক সহ খাল, খাস জমি দখল করেছে কিন্তু আমাদের স্টেডিয়ামের জমি দেয়নি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আকুল আবেদন সড়কটি জনগণের প্রয়োজনে দখল মুক্ত করা হোক। লুটের চর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার সানাউল্লাহ সিকদার বলেন আজ যারা আন্দোলন করছেন বিষয়টি যৌক্তিক কিন্তু আমি আগেই বলেছিলাম এই দিকে জায়গা দেওয়া হবেনা তখন উনারাই কোম্পানির সাথে আতাত করে সব ক্রয় করে বালু ভরাট করতে সহযোগিতা করেছেন।

 

কুমিল্লা অর্থনৈতিক অঞ্চল সিনিয়র ডিএমডি মোঃ মনিরুজ্জামানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন আমি তিন মাস হয় এই প্রকল্পে এসেছি যারা ল্যান্ড নিয়ে কাজ করে তারা বলতে পারবে আমি এখানে সড়ক দেখিনি। সরকারি সড়ক বেদখল হওয়ার বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাবেয়া আক্তারের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন গাছের বিষয়ে বলতে পারবোনা কিন্তু সড়ক ও সেতুর বিষয়ে এসিল্যান্ড সাহেব কোম্পানির দায়িত্ব প্রাপ্তদের সতর্ক করেছেন। নির্ভর যোগ্য সূত্র জানায় সকল মহল ম্যানেজ করে শিল্প আইনে সরকারি সড়ক ও সেতু খাল, খাস জমি সব লিজ নেওয়ার জোর পায়তারা চালিয়ে যাচ্ছেন কোম্পানি।

 

লুটের চর এলাকার বাসিন্দা মেঘনা উপজেলা চেয়ারম্যান সাইফুল্লাহ মিয়া রতন শিকদার বলেন দুই বছর হয় সড়কটি সরকারি হয়েছে, কোম্পানি সব টাকাই পরিশোধ করেছে। এখন অর্থনৈতিক অঞ্চল হয়েছে ফলে সরকারের দ্বায়িত্ব প্রাপ্তরা বিষয়টি দেখবেন।

 


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন


ফেসবুকে আমরা