July 17, 2024, 8:21 pm
সর্বশেষ:
মেঘনায় কোটা আন্দোলনকারীদের উপর ছাত্রলীগের হামলা মেঘনায় প্রকল্পের প্রায় সাড়ে ৩০লাখ টাকা আত্মসাতের ঘটনায় কর্মকর্তার ৫ বছরের কারাদণ্ড পার্বতীপুর যমুনা ওয়েল কোম্পানি লিমিটেডের ডিপোতে কর্মরত কয়েকজনকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদ  চেয়ারম্যান বাড়ির ঘাটে দৃষ্টিনন্দন ঘাটলা মেঘনায় নদীর ভাঙন রোধে ফেলা হচ্ছে জিওবি ব্যাগ মেঘনায় নদী ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শনে প্রশাসন, ক্ষতি গ্রস্তদের মাঝে শুকনো খাবার বিতরন স্ত্রীসহ আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা ডা. সাবরিনাসহ ৭ জনের নামে দুদকের মামলা কোটা নিয়ে হাইকোর্টের রায়ের ওপর ৪ সপ্তাহের স্থিতাবস্থা যুক্তরাজ্যের নগর মন্ত্রী হলেন টিউলিপ সিদ্দিক

মোদীর শপথ আজ, থাকছেন রাহুল-সোনিয়া

৩০ মে ২০১৯ ,বিন্দুবাংলা টিভি .কম ,আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দ্বিতীয় মেয়াদের সূচনা হচ্ছে আজ। দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে আজ (বৃহস্পতিবার ৩০ মে) সন্ধ্যা ৭টায় তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথগ্রহণ করছেন। একই সঙ্গে শপথ নেবে তার মন্ত্রিসভা। এ শপথ অনুষ্ঠানে বিমসটেকের নেতারা অংশ নিচ্ছেন বলে জানা যায়।

বৃহস্পতিবার ভারতীয় গনমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায়, নরেন্দ্র মোদী ও তার মন্ত্রিপরিষদের এই শপথ গ্রহন অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন প্রধান বিরোধী রাজনৈতিক দল ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধী ও তার মা সোনিয়া গান্ধী।

অপরদিকে ‘রাজনৈতিক সৌজন্য প্রদর্শনে শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার কথা বিবেচনায় নেয়ার কথা জানালেও  ২৪ ঘণ্টা না যেতেই সেই সিদ্ধান্ত বাতিল করেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গতকাল (বুধবার, ২৯ মে) স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ১৮ মিনিটে এক টুইট বার্তায় এই কথা জানান মমতা। এনডিটিভি

এই বার্তায় তিনি জানান, পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক সহিংসতায় খুন হওয়া বিজেপি কর্মীদের পরিবারকে মোদীর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ করার প্রতিবাদে তিনি এ শপথ অনুষ্ঠান বর্জন করছেন।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টুইটার বার্তায় লিখেছেন, ‘অভিনন্দন, নতুন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীজি। আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম সাংবিধানিক সৌজন্যের জন্যে আপনার শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যাব। কিন্তু সংবাদমাধ্যম থেকে জানতে পারছি, বিজেপি দাবি করেছে পশ্চিমবঙ্গে ৫৪ জন বিজেপি কর্মী খুন হয়েছেন। যা সম্পূর্ণ অসত্য। পশ্চিমবঙ্গে কোনও রাজনৈতিক হত্যার ঘটনা ঘটেনি। সেই হত্যার পেছনে পারিবারিক সমস্যা, শত্রুতা বা অন্যান্য কারণ থাকতে পারে। কিন্তু তা রাজনৈতিক হত্যা নয়।

তিনি আরও লিখেছেন, ‘আমি দুঃখিত, এই বিষয়টিই আমাকে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যাওয়া থেকে বিরত করতে বাধ্য করল।তিনি আরো লিখেছেন, ‘এই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান আসলে গণতন্ত্রের উদযাপন। কিন্তু সেটাকেই রাজনৈতিক ফায়দা তোলার মঞ্চ হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে।

আজ শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান এবং মন্ত্রিসভা গঠন নিয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে পাঁচ ঘণ্টার ম্যারাথন বৈঠক করেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। দেশ বিদেশ থেকে মোট ৭ হাজার আমন্ত্রিত অতিথিরা উপস্থিত থাকবেন শপথ গ্রহণে।‏ টাইমস অব ইন্ডিয়া


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন


ফেসবুকে আমরা